নিজেস্ব সংবাদদাতা,পুরুলিয়ায়া :পুরুলিয়া জেলার ঝারখান্ড লাগোয়া সীমাবদ্ধ এলাকার ঝালদা, ঝালদার সুবর্ণরেখার নদীর বিভিন্ন ঘাট থেকে চলছে অবৈধভাবে বালি প্রাচার। বালি পাচারের জেরে সমস্যা পড়েছেন আশেপাশে গ্রামের মানুষজন। ঘটনার বিষয়ে প্রশাসনকে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। খবর পেয়ে অবৈধভাবে বালী উত্তোলন ও পাচার রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে প্রশাসন। এই ঘটনার পরেই আন্দোলনে নেমেছেন জঙ্গলমহল ট্রাকটার অ্যাসোসিয়েশন।
ঝালদা থানা এলাকার সুবর্ণরেখা নদীর সুপুরি ঘাট, ত্রিবেণী ঘাট, শ্যামনগর  ঘাটে দীর্ঘদিন ধরে চলছিল অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের কাজ। বালি মাফিয়াদের দৌরাত্ম্যে সমস্যায় পড়েন আশপাশে গ্রামবাসীরা। বিষয়টি জানানো হয় প্রশাসনকে ।জেলাশাসক অলোকেশ প্রসাদ রায়ের নির্দেশের পর অবৈধ বালি উত্তোলনের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করেন ঝালদা পুলিশ ও প্রশাসন। আটক করা হয় কয়েকটি ট্রাক্টরও। এরপর এই এলাকার শতাধিক ট্রাক মালিক ও শ্রমিকরা প্রশাসনের বিরুদ্ধে অযোথা হেনস্থার করার প্রতিবাদে  ট্রাকটার ধর্মঘট ও রাস্তায় নেমে আন্দোলন আরম্ভ করেন। তাদের দাবি সরকারি নিয়ম নীতি মেনেই আমরা বালির ব্যবসা করতে চাই , রয়ালটিও সরকারের নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী প্রদান করা হবে। এই বিষয়ে প্রশাসনকে জানানো হয়েছে তা সত্ত্বেও প্রশাসন আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা রুজু করে ব্যবসায় হস্তক্ষেপ করছেন। 
স্থানীয়  কংগ্রেস বিধায়ক নেপাল মাহাতো এই ঘটনার জন্য সরকারের ভুল নীতি কে দায়ী করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.