আদ্রা তৃণমূল নেতা খুন এই জেলার শেষ খুন এরপর যদি আরেক জনও তৃণমূল কর্মীর গায়ে আঁচড় পড়ে তাহলে বিজেপির জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর বাবু আপনার ঘর ঘেরাও হবে আমি কর্মীদের নির্দেশ দিয়ে যাচ্ছি একজন তৃণমূল কর্মীর গায়ে আঁচড় এলে বিজেপির অঞ্চল সভাপতি ব্লক সভাপতিদের বাড়ি ঘেরাও করুন কলকাতা থেকে আমি এসে নেতৃত্ব দেব। বৃহস্পতিবার পুরুলিয়া জেলার রঘুনাথপুর থানা অন্তর্গত মৌতড় ফুটবল ময়দানে ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেড সবার পক্ষে সভা করতে এসে এ কথা বললেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়াও এ সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন একই রকম রথ গাধা কে বলে ঘোড়া বাস কে বলে রথ এই রতে সব রকম সরঞ্জাম রয়েছে ছাইপাঁশ থেকে মলত্যাগের ব্যবস্থা। রয়েছে নেতাদের ফুর্তি করা ও ব্যবস্থা। এদিন এই সভামঞ্চে বলরামপুর পঞ্চায়েত সমিতির 8 জন বিজেপির জয় সদস্য তৃণমূলে যোগদান করেন এই যোগদানের ফলে বিজেপির শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত বলরামপুরের পঞ্চায়েত সমিতি দখল করে নিল তৃণমূল। মোট কুড়ি সিটের এই পঞ্চায়েত সমিতিতে পঞ্চায়েত নির্বাচনে সাতটি আসনে জয়লাভ করে বিজেপি ও তিনটি আসনে জয়লাভ করে তৃণমূল কংগ্রেস কিছুদিন পরে বিজেপির এক পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য যোগদান করেন তৃণমূলে এবং আজকের সভামঞ্চে ৮ জন সদস্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ করলে তৃণমূলের সংখ্যা দাঁড়ায় ১২।
এদিনেই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন নিহত তৃণমূল নেতা হামিদ আনসারি স্ত্রী ও পুত্র। এছাড়াও রঘুনাথপুরের নিহত শিক্ষক চিন্ময় মন্ডলের মা ও বাবা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.