#kabangla #khabarananda
বলরামপুর ও জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতি দখল করল তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে টান টান উত্তেজনার মধ্যে এই দুই পঞ্চায়েত সমিতির বোর্ড গঠন প্রক্রিয়া আরম্ভ হয়। বলরামপুর এর মোট কুড়িটি পঞ্চায়েত সমিতির আসন এর মধ্যে 17 টি আসনে জয়লাভ করে বিজেপিও তিনটিতে তৃণমূল কংগ্রেস। পরবর্তীকালে নজম বিজেপির সদস্য তৃণমূলে যোগদান করার ফলে আজ বলরামপুর পঞ্চায়েত সমিতি দখল করল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতির মোট 21 টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ও বিজেপি নটা নটা আসনে জয় লাভ করে কংগ্রেস ফরওয়ার্ড ব্লক ও সিপিএম একটি করে আসন। এদিন কংগ্রেসের এক সদস্যকে নিয়ে মোট 10 জন সদস্য মিলে জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতি দখল নয় তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও বামেদের দুই সদস্য এবং বিজেপির 9 সদস্য মোট 11 জন সদস্য মিলেও দখল করতে পারল না জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতি। বিজেপির অভিযোগ প্রশাসন জোর খাটিয়ে তাদের সদস্য কে পঞ্চায়েত গঠন প্রক্রিয়া কেন্দ্রের মধ্যে মারধর করে এবং ভোট দান করতে দেয়নি বলেই অগণতান্ত্রিকভাবে তৃণমূল বোর্ড গঠন করেছে আমরা এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব। যদিও তৃণমূলের দাবি উন্নয়নের স্বার্থে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকে জেতা প্রতিনিধিরা আমাদের দলে যোগদান করছেন এবং মানুষের উন্নয়নের পাশে থাকার অঙ্গীকার নিয়ে আমরা বিভিন্ন পঞ্চায়েত সমিতি বোর্ড গঠন করতে পারছি। তবে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা সকাল থেকে বলরামপুরে আমাদের কর্মীদের উপরে চড়াও হয় আমাদের কর্মীদের বাইক ভাঙচুর করে এবং পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করে। এছাড়াও জয়পুর পঞ্চায়েত সমিতি গঠন প্রক্রিয়া আরম্ভ হতেই তারা কর্মরত প্রিজাইডিং অফিসার উপরেও চড়াও হন এবং মারধর করেন উনি তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.