কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠন গুলির ডাকা দুদিনের সাধারণ ধর্মঘটের প্রথম দিন আংশিক প্রভাব দেখা গেল পুরুলিয়া জেলায়। মঙ্গলবার সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন জায়গায় ট্রেন সহ সরকারি এবং বেসরকারি বাসের যাতায়াত ছিল স্বাভাবিক। খোলা ছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সহ বাজার হাট। এদিন সকাল থেকে বন্ধের সমর্থনে বন্ধ সমর্থককারীরা জেলার বেশ কয়েকটি জায়গায় মিছিল করেন কয়েকটি জায়গায় পথ অবরোধ করার চেষ্টা করলে পুলিশ অবরোধ উঠিয়ে দেয়। এদিন বান্দর বিরোধিতায় জেলার বেশ কিছু জায়গায় তৃণমূল কংগ্রেস কে বন্ধ ব্যর্থ করার লক্ষ্যে মিছিল করতে দেখা যায়। এদিন সকাল 11 টা নাগাদ পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন পর্ষদর মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো জেলাশাসক কার্যালয়ে পৌঁছে কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলেন বন্ধের কারণে তাদের কোনো অসুবিধা হয়েছে কিনা জানতে চান। এরপর তিনি জেলাশাসক অলোকেশ প্রসাদ রায়ের সঙ্গে বান্দ নিয়ে বৈঠক করেন। এদিন তিনি জানিয়েদেন রাজ্য সহ পুরুলিয়ার মানুষ এই বান্দকে ব্যর্থ করেছেন সরকারি কার্যালয়ে হাজিরা ছিল অন্যদিনের তুলনায় বেশি। জেলাজুড়ে পরিবহন ব্যবস্থা ছিল অন্যান্য দিনর মতনই। জেলাশাসক অলোকেশ প্রসাদ রায় জানান বন্দের কোন প্রভাব পড়েনি পুরুলিয়া জেলায়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, আদালত খোলা ছিল অন্যদিনের মতনি। ধর্মঘট কে কেন্দ্র করে জেলায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Blogger দ্বারা পরিচালিত.